শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ১০:০৪ পূর্বাহ্ন

সিলেটে তৈরি হচ্ছে দেশের বৃহত্তম ১ হাজার শয্যার আইসোলেশন সেন্টার

সৈয়দ মারুফ নূরী
  • Update Time : সোমবার, ১৫ জুন, ২০২০
  • ১৭৯ Time View

 

করোনা উপসর্গ ও আক্রান্ত রোগীতে ভরে যাচ্ছে সিলেট বিভাগের একমাত্র করোনা হাসপাতাল শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতাল। বেসরকারি দুটি হাসপাতালে করোনার চিকিৎসা শুরু হলেও সেখানে সেবা গ্রহন অত্যন্ত ব্যয়বহুল। এ অবস্থা বিবেচনায় এক হাজার শয্যার একটি আইসোলেশন সেন্টার স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে সিলেটে। পাশাপাশি আইসোলেশনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে আরও দুটি সরকারি হাসপাতালেও। এই তিনটি সেন্টারেই আর্থিক সহায়তা করবেন বলে জানা গেছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাসরত প্রবাসীরা।

করোনা সংক্রমণের শুরুতে চিকিৎসার জন্য তিনটি সরকারি হাসপাতাল নির্ধারণ করা সিলেটে হলেও আইসিইউ সুবিধা সহ ১০০ শয্যার শামসুদ্দিন হাসপাতালেই সেবা কার্যক্রম করা হয় চালু। সেন্ট্রাল অক্সিজেন ও পর্যাপ্ত লোকবল না থাকায় সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতাল ও খাদিম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগী ভর্তিতে বিরত হন সংশ্লিষ্টরা। করোনা রোগী আশংকাজনক হারে বেড়ে যাওয়ায় শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে ডেডিকেটেড নতুন হাসপাতার অত্যাবশ্যক হয়ে উঠে। এতে এগিয়ে আসেন সিলেটের প্রবাসীরা। প্রবাসীদের অর্থায়নে পরিচালিত সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশন দুটি আইসোলেশন স্থাপনে অগ্রনী ভূমিকায় নামে।
স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তায় তারা ৩১ শয্যার খাদিম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ৫০ শয্যার দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আইসোলেশন সেবা চালুর উদ্যোগ নিয়েছে তারা। দুটি হাসপাতাল পরিচালনার জন্য নিয়োগের বিজ্ঞপ্তিও দিয়েছে তারা জনবলের। এদিকে, একটি বৃহৎ আইসোলেশন সেন্টার স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। নগরীর মাছিমপুরস্থ আবুল মাল আবদুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সে একহাজার শয্যার এই আইসোলেশন সেন্টার স্থাপনের পরিকল্পনা গ্রহন করেছে সিলেট জেলা প্রশাসন। এ ছাড়া অবকাঠামো প্রস্তুত থাকায় ক্রীড়া কমপ্লেক্সে আইসোলেশন স্থাপনের কাজেও লাগবে না বেশি সময়।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category